৬ গোলের ম্যাচে নাকানিচুবানি খেলেন রোনাল্ডোরা

বাহাদুর ডেস্ক :

নিজেদের ঘরের মাঠে পেয়ে তারকায় ভরপুর হটফেভারিট জুভেন্টাসকে একরকম নাকানিচুবানি খাইয়ে ছাড়ল দুর্বল দল সাসৌলো।

সাসৌলোর পর পর তিন গোল হজম করতে হয়েছে রোনাল্ডোদের। আর সেসব গোল পরিশোধ করে কোনোমতে হার এড়িয়েছে শিরোপাপ্রত্যাশী জুভেন্টাস।

যদিও প্রথমে ২-০ এ এগিয়ে ছিলেন জুভিরা, কিন্তু পর পর তিন গোল করে খেলার চিত্রটাই পাল্টে দেয় সাসৌলো। অন্যরকম উত্তেজনায় নিয়ে দাঁড় করায়।

বুধবার রাতের ম্যাচে মাত্র ১২ মিনিটের মধ্যেই দুই গোল করে জুভেন্টাস। ম্যাচের পঞ্চম মিনিটে মিরালেম পিয়ানিচ কর্ণার দিয়ে সাসৌলোর গোলমুখ খোলেন ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার দানিলো।

এর সাত মিনিট পর ফের আঘাত হানেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড গনজালো হিগুয়েইন। এবারও পিয়ানিচের এসিস্ট। হিগুয়েইনের নিখুঁত ফিনিশিংয়ে দুই গোলের লিড নেয় জুভেন্টাস।

তবে পিছিয়ে পড়ে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে সাসৌলো। একের পর এক আক্রমণে জুভেন্টাস গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি বুফনের কঠিন পরীক্ষা নিতে থাকেন তারা।

আর সফলও হয় সাসৌলো। ২৯ মিনিটের মাথায় ফিলিপ দুরিসিচ গোল করলে ২-১ স্কোরে বিরতিতে যায় দুদল।

দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে ফের শানিত আক্রমণ চালাতে থাকেন সাসৌলোর স্ট্রাইকাররা। মাত্র তিন মিনিটের ব্যবধানে করে ফেলে জোড়া গোল। ৫১ মিনিটের সময় ডমিনিক বেরার্দি এবং ৫৪ মিনিটের মাথায় ফ্রান্সেস্কো কাপুতোর পরাস্থ করেন বুফনকে।

ফলে ২ গোলে পিছিলে থাকা দল সাসৌলো লিড নিয়ে খেলার মোড়ই ঘুরিয়ে দেয়। এমন পরিস্থিতিতে ম্যাচ হারার শঙ্কায় ভুগতে থাকেন জুভেন্টাসভক্তরা।

সবার নজর দলের সেরা তারকা সিআর সেভেন রোনাল্ডোর দিকে। কিন্তু ম্যাচের ৬২ মিনিটের সময় হলুদ কার্ড দেখেন রোনাল্ডো। এতে হতাশার মাত্রা আরও বেড়ে যায়।

তবে ম্যাচের ৬৪ মিনিটে সেই হতাশাকে নিমিষেই মিলিয়ে দেন অ্যালেক্স সান্দ্রো।

তার কারিশম্যাটিক গোলে পরাজয় এড়ায় জুভেন্টাস। ৩-৩ স্কোর নিয়ে মাঠ ছাড়ে দুদল।

এ নিয়ে টানা তিন ম্যাচ জয়হীন থাকলেন জুভিরা।

লিগের ৩৩ রাউন্ড শেষে ২৪ জয় ও ৫ ড্রয়ে ৭৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই রয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাস। দুইয়ে থাকা আটলান্টার চেয়ে এগিয়ে রয়েছে ৭ পয়েন্টে। বাকি পাঁচ থেকে থেকে ৮ পয়েন্ট পেলেই আবারও চ্যাম্পিয়ন হবে রোনাল্ডোর দল। অন্যদিকে ৩৩ ম্যাচে ৪৭ পয়েন্ট নিয়ে আট নম্বরে রয়েছে সাসৌলো।

টি.কে ওয়েভ-ইন