শহরে চুরি, গ্রামে বিক্রি

বাহাদুর ডেস্ক :

চট্টগ্রামে আন্তঃজেলা মোটরসাইকেল চোর চক্রের সাত সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাদের কাছ থেকে চারটি চোরাই মোটর সাইকেল ও মোটর সাইকেল চুরির বিশেষ চাবি উদ্ধার করা হয়েছে।

শনিবার নগর ও মিরসরাইয়ের জোরারগঞ্জ এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার সাতজন হলেন- মেহেদী হাসান হৃদয়, সমীর কান্তি বনিক, মিজানুর রহমান সম্রাট, বেলায়েত হোসেন বাদশা ওরফে বেলাল, অনিক দেবনাথ, রেজাউল করিম বাচ্চু ও মো. আসাদুজ্জামান। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শহর থেকে মোটর সাইকেল চুরি করে গ্রামে নিয়ে বিক্রির কথা স্বীকার করেছে আসামিরা।

কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে নগরের জুবিলী রোড এলাকা থেকে মোটর সাইকেল চোর চক্রের মূল হোতা মেহেদী হাসান হৃদয় ও সমীর কান্তি বনিককে গ্রেফতার করা হয়। পরে নগরের আকবরশাহ সলিমপুর এলাকা থেকে একই চক্রের আরও দুই সদস্য মিজানুর রহমান সম্রাট ও বেলায়েত হোসেন বাদশাকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে মিরসরাইয়ের জোরারগঞ্জ থেকে চোরাই মোটরসাইকেল বিক্রেতা আসাদুজ্জামান, রেজাউল করিম বাচ্চু ও অনিক দেবনাথকে গ্রেফতার করে পুলিশ। আসামিদের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

কোতোয়ালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কামরুজ্জামান জানান, আসামীরা আন্তঃজেলা মোটরসাইকেল চোর চক্রের সদস্য। তারা বিশেষ চাবি (মাস্টার কি) ব্যবহার করে মোটরসাইকেল স্টার্ট দিয়ে চুরি করে নিয়ে যায়। অনেক সময় গাড়িতে লাগানো তালা বিশেষ কৌশলে ভেঙে মোটর সাইকেল চুরি করে। শহর এলাকা থেকে চুরি করে চক্রের অন্য সদস্যদের মাধ্যমে গ্রামে বিক্রি করে। অনেক সময় জাল কাগজ তৈরি করে পুরাতন মোটরসাইকেল বলে মানুষের কাছে বিক্রি করে। যিনি কিনেন তিনি চোরাই মোটর সাইকেল কিনা এটা জানতে পারেন না।

টি.কে ওয়েভ-ইন