ময়মনসিংহ জেলার শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত হলেন গৌরীপুরের বোরহান উদ্দিন

প্রধান প্রতিবেদক :
এবারও শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত হলেন ময়মনসিংহের গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ও.সি) মোঃ বোরহান উদ্দিন। ইতোপূর্বে তিনি নেত্রকোণা জেলা ও ময়মনসিংহ রেঞ্জে ১০বার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ নির্বাচিত হন। রোববার (১৫ মার্চ/২০২০) ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ লাইন্স মিলনায়তনে মাসিক কল্যাণ সভায় শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জের পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে।

এছাড়াও গৌরীপুর থানার সাবইন্সপেক্টর (এস.আই) মোঃ সোলায়মান হক শ্রেষ্ঠ এসআই ও কন্সটেবল ইসমাইল হোসেন শ্রেষ্ঠ কন্সটেবল নির্বাচিত হন। শ্রেষ্ঠ নির্বাচিতদের হাতে সনদপত্র ও ক্রেস্ট প্রদান করেন জেলা পুলিশ সুপার মোহা. আহমার উজ্জামান, পিপিএম সেবা।

এ সময় জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও সদর সার্কেল আল আমিন, গফরগাঁও সার্কেল এএসপি আলী হায়দার, স্বাগতা ভট্টাচার্য মৌ ও শারমিন চুমকি (এএসপি শিানবিস) প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ সমাবেশ, অস্ত্র উদ্ধার, আইন-শৃঙ্খলার উন্নতি, দতা ও সাহসিকতা, মাদক নিয়ন্ত্রণ অগ্রণী ভূমিকা পালন, সমাজ থেকে অপরাধ নির্মূলের জন্য সচেতনতা সভা, ওয়ারেন্ট তামিল, মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি করায় অফিসার ইনচার্জ মোঃ বোরহান উদ্দিনকে শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ নির্বাচিত করা হয়। এছাড়াও জানুয়ারি মাসে দ্রুত চোরাই মালামাল উদ্ধার-আসামী গ্রেফতারের জন্য উত্তম পুরস্কারে ভূষিত হন।
তিনি ২০১৫সালে অফিসার ইনচার্জ হিসাবে ঈশ্বরগঞ্জে প্রথম যোগদান করেন। এরপর নেত্রকোণায় ছিলেন দীর্ঘদিন। এসময়ে কর্মদক্ষতার জন্য ১০বার জেলা ও রেঞ্জে শ্রেষ্ঠ অফিসার নির্বাচিত হন। তিনি জানান, ফেব্রুয়ারি মাসে গৌরীপুর থানায় জাতীয় জরুরী ৯৯৯’র কলসেবা দেন ৪০টি, ১২টি জুয়া মামলায় ৭৬জনকে গ্রেফতার, ৩০টি নিয়মিত অভিযান, ৩২টি মাদক মামলায় ৩৭জনকে গ্রেফতার, নারী ও শিশু নির্যাতনের ১৪টি মামলায় ১৪জন আসামী গ্রেফতার, একটি অস্ত্র উদ্ধার ও আসামী গ্রেফতার, বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে ১৫টি বিশেষ সভা, নিয়মিত মামলায় ৪৭জনকে গ্রেফতার, জামাত-শিবিরের সাবেক আমীরসহ ৩জন গ্রেফতার, সাজাপ্রাপ্ত ৬জন ও গ্রেফতারী পরোয়ানাভূক্ত ৮০জনকে গ্রেফতার করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করেন। একমাসে ২১৪টি ওয়ারেন্ট নিষ্পত্তির ঘটনা এ থানার জন্য বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন।

তিনি নরসিংদী জেলার মাধবদী থানার মৃত রজব আলী ও আমিরুন বেগমের পুত্র। দাম্পত্য জীবনের দুই সন্তানের জনক। মেয়ে তায়িবা সুলতানা ময়মনসিংহ মুকুল নিকেতনে ৯ম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত। ছেলে মোবাসির বোরহান ময়মনসিংহের একটি বেসরকারি স্কুলে দ্বিতীয় শ্রেণিতে অধ্যয়নরত।
অপরদিকে সাবইন্সপেক্টর মোঃ সোলায়মান হক ২০১৫সালে এসআই হিসাবে ঢাকা ডিএমপির বাড্ডা থানায় যোগদান করেন। তিনি জামালপুর জেলার বকসীগঞ্জ উপজেলার ঘাসিরপাড়া গ্রামের মোঃ কোব্বাত আলী ও সামছুন নাহারের পুত্র। বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে যোগদানের পর এটাই তার প্রথম পুরস্কার।

এদিকে গৌরীপুর থানায় কর্মরত কন্সটেবল ইসমাইল হোসেন শ্রেষ্ঠ ওয়ারেন্ট তামিলকারী কন্সটেবল নির্বাচিত হন। তিনি ২০০৩সালে চট্টগ্রাম রেঞ্জে যোগদান করেন। তার বাড়ি কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলার চরহাজী গ্রামে। তিনি চরহাজী গ্রামের আফাজ উদ্দিন ও আয়শা বেগমের পুত্র।

টি.কে ওয়েভ-ইন