ময়মনসিংহে পিবিআইয়ের অভিযানে অপহৃত কলেজ ছাত্রী দুই বছর পর উদ্ধার

এম.এ আজিজ, প্রধান প্রতিবেদক, ময়মনসিংহ :

ময়মনসিংহের নান্দাইলে অপহৃত এক শিক্ষার্থীকে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) টিম উদ্ধার করেছে। শনিবার অপহৃত শিক্ষার্থী (ভিকটিম) নাসরিন সুলতানাকে (২১) ত্রিশাল থানা এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়। পরে তাকে ২২ ধারায় তার জবানবন্দি লিপিবদ্ধ করানোর জন্য ময়মনসিংহের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

পিবিআই ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস জানান, ২০১৮ সালের ২৪ জুলাই নান্দাইল থানার মামলা নম্বর-২৩ এর প্রেক্ষিতে দুই বছর পর অপহৃত ভিকটিমকে উদ্ধার করা হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, নাসরিন কিশোরগঞ্জ গুরুদয়াল সরকারি কলেজে স্নাতক প্রথম বর্ষের ছাত্রী ছিল। তিনি নান্দাইল শহীদ স্মৃতি ডিগ্রি কলেজে পড়ার সময় আসামি আল আমিন (২৩) প্রায়শই তাকে ইভটিজিং করত। এ ঘটনায় ২০১৬ সালের ৭ নভেম্বর ভ্রাম্যমাণ আদালত আল আমিনকে ৪০ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেন। এরপর থেকে আল আমিন ও তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা নাসরিন সুলাতানা ও তার পরিবারের সদস্যদের নানাভাবে ক্ষতি করার সুযোগ খুঁজতে থাকে। ২০১৮ সালের ১৯ ফেব্র“য়ারি নাসরিন সুলতানা কিশোরগঞ্জ গুরুদয়াল বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে আচারগাঁও ফাজিল মাদরাসার দক্ষিণ পাশে ফাঁকা জায়গায় পৌঁছামাত্র আল আমিন সহ আসামিরা পুর্বআক্রোশ থেকে আগে থেকেই মারাত্মক অস্ত্রসহ মাইক্রোবাস নিয়ে নাসরিনের পথরোধ করে এবং অস্ত্রের মুখে তাকে অপহরণ করে।
এ ঘটনায় থানায় মামলা করলে পুলিশ মামলা তদন্ত শেষে ভিকটিমকে উদ্ধারসহ তার জবানবন্দি বিজ্ঞ আদালতে লিপিবদ্ধ না করে চূড়ান্ত রিপোর্ট দেয়। সেই রিপোর্ট তথ্যগত ভুল দাখিল করায় বাদী আদালতে নারাজি দেন। আদালতের নির্দেশে ২০১৯ সালের ৪ জানুয়ারি ময়মনসিংহ জেলা পিবিআই মামলার তদন্তভার গ্রহণ করে। শনিবার তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ভিকটিম নাসরিন সুলতানাকে ত্রিশাল শেকে উদ্ধার করা হয়। এছাড়া পিবিআইয়ের ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস আরো বলেন, সব আসামি জামিনে মুক্ত থাকায় তাদের কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।