মোহাম্মদ শহীদুল্লাহর কবিতা- দুরন্ত শৈশব

 

ইমিটেশনে মুড়িয়েছে প্রেমের আদল
সিরামিকে ঢেকে দিয়ে
মানবিক দেয়ালে টানালে পোস্টার
যতই গরজিয়াস লাগুক উন্মাতাল দুপুর
তথাকথিত ঢুলুঢুলু গানের বিকেলটা
অর্থ হীন প্রলাপে ভরপুর মনে হয়।

নদীর গলা টিপে ধরে গাইছি ভাটিয়ালি
বৈঠায় জল হয় রক্তের ঢেউ
সোনালী চিবুকের পরিসীমায় দাঁতাল শুয়োরের অবয়ব প্রতিরাতে মগ্নতার তারে দিয়ে যায় দৃশ্যত অশালীন সুরের প্রলেপ।

আরেকবার শোভন রাজার টোপর থেকে
ঝড়ুক গণমুখী ঘামের বিন্দু।
বিশ্বাস্য ছায়াতল কাঁদছে
অনিন্দ্যসুন্দরের হাত ভেঙে
পংগু ছবি আঁকে।

ফুলের গন্ধ আর উচ্ছ্বসিত শিশুমনের
বাতায়ন খুলে দাও
শিশুরা খলের হাসি হাসেনা
ওর চোখ ব্রহ্মপুত্রের স্বচ্ছতায় করে
কাব্যপাঠ
ধমনীতে মুক্তিসেনার রোদ্দুরে ঝিলমিল করে রক্তকণারা।
মা কে মা বলেই ভাবে
ফুলকে ফুলই বলে অবলীলায়
লাল কে বলে লাল,
স্বাধীন স্বাধীন আকাশপটে
ঝড়কে জানায় স্বাগতম।