বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যু ৪৬ হাজার, আক্রান্ত ৯ লাখ ছাড়িয়েছে

বাহাদুর ডেস্ক :

বিশ্বজুড়ে বুধবার পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ৪৬ হাজার এবং আক্রান্ত ৯ লাখ ছাড়িয়েছে। এর মধ্যে কেবল ইউরোপেই সংখ্যাটা ৩০ হাজারের বেশি। চীন ও ইরানের পর করোনা ভাইরাস মূল আঘাতটি হানে ইতালিতে। তবে করোনা ভাইরাসের কেন্দ্র এখন ইতালি থেকে সরে ক্রমশ স্পেনের দিকে যাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রেও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। এক দিনে স্পেনে ৮৬৪ জন এবং ব্রিটেনে ৫৬৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

ইউরোপে মৃত্যু বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে

স্পেন এখন বিশ্বের তৃতীয় দেশ যেখানে ১ লাখের বেশি মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত। জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের করোনা ভাইরাস আপডেট বলছে, স্পেনে গতকাল মৃতের সংখ্যা মোট ৯ হাজার ছাড়িয়েছে। অর্থাত্ কেবল স্পেন ও ইতালিতেই মারা গেছে ২২ হাজারের বেশি মানুষ। টানা পাঁচ দিন স্পেনে ৮০০ বা তার চেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছে। তবে গোটা ইউরোপের অবস্থাই এখন শোচনীয়। চীনে মৃতের সংখ্যা ৩ হাজার ২০০র মতো। এর চেয়ে বেশি মারা গেছে কেবল ফ্রান্স, ইতালি ও স্পেনে।

ইতালিতে মৃতের সংখ্যা ১৩ হাজার ১৫৫। ২৪ ঘণ্টায় ৮৩৭ জন মারা গেছে। যুক্তরাজ্যে মৃতের সংখ্যা ২ হাজার ৩০০ ছাড়িয়েছে। নেদারল্যান্ডে ১ হাজার অতিক্রম করেছে। বেলজিয়ামে ৮০০র বেশি মানুষ মারা গেছে। জার্মানিতেও ৮০০র কাছাকাছি মানুষ করোনা ভাইরাসে মারা গেছে। সুইজারল্যান্ডে ৫০০র কিছু কম মানুষ মারা গেছে। তুরস্ক, সুইডেন ও পর্তুগালেও ৭শ’র বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে এই বৈশ্বিক মহামারিতে। এদিকে অস্ট্রিয়ায় মারা গেছে প্রায় দেড়শ’ মানুষ। ইউরোপ পুরো বিশ্ব থেকে কার্যত বিচ্ছিন্ন।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন পুরো ইউরোপ জুড়ে লকডাউন দিয়েছে। ১৮ মার্চ থেকে সেটা বলবত্ আছে। গতকাল ইরানে মৃতের সংখ্যা ৩ হাজার ছাড়িয়েছে। এদিকে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা ফাঁকি দিয়ে ইরানে চিকিত্সা সরঞ্জাম পাঠিয়েছে ৩ ইউরোপীয় দেশ ব্রিটেন, ফ্রান্স ও জার্মানি। খুবই জটিল এক আর্থিক ব্যবস্থা ব্যবহার করে এই পদক্ষেপ নিয়েছে তিন দেশ। ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেছেন, এই সময়েও নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার না করে যুক্তরাষ্ট্র সুযোগ হারিয়েছে।

বিশ্বে ৯ লাখ ১২ হাজার ৬৫০ জন মানুষ আক্রান্ত এবং মৃত্যু হয়েছে ৪৬ হাজার ১৫৩ জনের। তবে বিবিসির রাজনৈতিক সম্পাদক লরা কুয়েন্সবার্গ বলছেন, যুক্তরাজ্যে টেস্ট কম করা হচ্ছে, এটা একটা রাজনৈতিক সমস্যা। করোনা ভাইরাসে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ ইতালি। ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৭২৭ জনের। এর আগে মঙ্গলবার মারা যায় ৮৩৭ জন। মোট মৃত্যু ১৩ হাজার ১৫৫ জন। বেড়েছে নতুন সংক্রমণের সংখ্যাও। বুধবার সংক্রমণ হয়েছে ৪ হাজার ৭৮২ জনের মধ্যে। তবে আগের সপ্তাহের একই সময়ের তুলনায় কমেছে সংক্রমণের হার।

ফ্রান্সে এর আগে ২৪ ঘণ্টায় নতুন ৪৯৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে মোট মৃত্যু ৩ হাজার ৫২৩। প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর থেকে দৈনিক মৃত্যুর হিসেবে এটিই ছিল ফ্রান্সে সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর ঘটনা। বেলজিয়ামে ১২ বছর বয়সি এক শিশু মারা গেছে কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে। এটিকে ধারণা করা হচ্ছে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়ে ইউরোপে সবচেয়ে কম বয়সি কারো মৃত্যু হিসেবে। বেলজিয়ামে মোট মারা গেছে ৮২৮ জন। রাশিয়ার আইনপ্রণেতারা কিছু ‘অ্যান্টিভাইরাস’ আইন পাশ করেছেন, যার মধ্যে কোয়ারেন্টাইনে নিয়ম না মানলে সাত বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডের নিয়মও রয়েছে। রাশিয়া একটি বিমানে যুক্তরাষ্ট্রে চিকিত্সা সরঞ্জাম পাঠিয়েছে।

অন্যান্য দেশ

যুক্তরাষ্ট্রের রণতরী ইউএসএস থিওডোর রুজভেল্টের ৭০ নাবিক করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। দেশটির বিভিন্ন রাজ্যে গতকাল নতুন করে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

সোমালিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নূর হাসান হোসেইন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। ভারতে এক রাতে আক্রান্ত ৪৩৭ জন বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৮৩৪ জনে। মারা গেছে ৪১ জন। এর মধ্যে গতকালই ৬ জন মারা গেছে। দেশটিতে তাবলিগ জামাত থেকে সংক্রমণ ছড়ানো নিয়ে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা শুরু হয়েছে। পাকিস্তানে ২ হাজার ১১২ জন আক্রান্ত এবং ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। —বিবিসি, আলজাজিরা ও রয়টার্স।

টি.কে ওয়েভ-ইন