বিনাপয়সায় ভাতাবহি পেলেন ডৌহাখলা ইউনিয়নের ২১১জন

প্রধান প্রতিবেদক :

বিনাপয়সায় ভাতাবহি-প্রকৃত সুবিধাভোগীদের নিকট পৌঁছে দিতে ব্যতিক্রমী আয়োজন চলছে ময়মনসিংহের গৌরীপুরে। এ উদ্যোগের অংশ হিসাবে সোমবার বয়স্কভাতা, বিধবাভাতা ও প্রতিবন্ধীদের মাঝে ভাতাবহি বিতরণ অনুষ্ঠিত হয় ডৌহাখলা ইউনিয়নে।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয় সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা নাজিম উদ্দিন আহমেদ এমপি।  প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, এই ভাতা কে দিয়েছেন.. জননেত্রী শেখ হাসিনা, বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী। তিনি এ সময় সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের বর্ণনাও তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডৌহাখলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ শহীদুল হক সরকার। ২০১৯-২০ অর্থবছরে সমাজসেবা অধিদপ্তরের আওতায় ৭৮ জনকে বয়স্কভাতা, ৪০ জনকে বিধবা ভাতা ও ৯৩ জন প্রতিবন্ধীকে ভাতাবহি প্রদানের বিষয়টি নিশ্চিত করেন উপজেলা সমাজসেবা অফিসার ইশতিয়াক আহমেদ।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন গৌরীপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোফাজ্জল হোসেন খান। তিনি বলেন, সরকারের এসব ভাতা নিতে টাকা লাগে না, ভাতা বই কিনতে পাওয়া যায় না, বিনা পয়সার সরকার দেয়। এই বার্তাটি সাধারণ মানুষের নিকট পৌঁছে দিতে হবে।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ডৌহাখলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ কাজিম উদ্দিন, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ জয়নাল আবেদিন (জনাব আলী), ডৌহাখলা উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রতন সরকার। উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সমাজসেবা অফিসারের প্রতিনিধি ইকবাল হোসাইন, পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন বাচ্চু, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আল মুক্তাদির শাহীন, সাধারণ সম্পাদক ইমতিয়াজ সুলতান জনি প্রমুখ।

উল্লেখ যে, এসব ভাতাভোগীদের নিকট থেকে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের ৩হাজার থেকে ৭/৮ হাজার টাকা করে উৎকোচ গ্রহণের অভিযোগ ইতিপূর্বে ছিলো। এসব অভিযোগের প্রেক্ষিতে প্রকাশ্যে যাছাই-বাচাই করে নামীয় তালিকা প্রণয়ন করে ভাতাভোগীদের হাতে এ কার্ড পৌছে দেয়া হচ্ছে।