পূর্বধলায় মজা করে ৩৩৩ কল করে ত্রান নেওয়ায় দুই ব্যাক্তিকে ২৮ হাজার টাকা জরিমানা

তিলক রায় টুলু
ত্রান পাওয়ার উপযোগী নয় তারপরও মজাকরে ৩৩৩ নম্বরে কল করে সরকারি ত্রান নেওয়ার অপরাধে পুর্বধলায় ২ ব্যাক্তিকে ২৮ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত।
সোমবার ১৩ এপ্রিল রাত ৮টার দিকে পূর্বধলা উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভূমি)ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাসরীন বেগম সেতুর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত এ জরিমানা করেন।
দন্ডপ্রাপ্ত ব্যাক্তিরা হলেন উপজেলার বিশকাকুনী ইউনিয়নের ধোবারুহী গ্রামের লাল মিয়ার ছেলে হারুন-অর-রশিদ (৫৫) ও আব্দুল বারেকের ছেলে আবুল বাশার (৩৫)।
আদালত ত্রান কার্যে বিঘœ সৃস্টি করায় দূর্যোগ ব্যবস্থাপনায় আইন ২০১২এর ৩৮ ধারায় হারুন অর-রশিদ কে ২৫ হাজার টাকা অনাদায়ে ১৫ দিনের জেল ও আবুল বাশার কে ৩ হাজার টাকা অনাদায়ে ৩ দিনের কারাদন্ড প্রদান করা হয়।

পূর্বধলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) উম্মে কুলসুম জানান সোমবার সকালে ওই দুই ব্যাক্তি হেল্প লাইন ৩৩৩ নম্বরে ফোন করে ত্রানের জন্য সহযোগিতা চান । জরুরী ভিত্তিত্বে তাদের জন্য ত্রানও পাঠানো হয়। ত্রান পাঠনার পর জানাযায় ওই দুই ব্যাক্তি ত্রান পাওয়ার উপযোগী নয়। তারা মজা করছিল ৩৩৩ নম্বরে ফোন করলে ত্রান পাওয়া যায় কিনা তা প্ররখ করছিল। স্থানীয়রা জানান হারুন অর রশিদ পেশায় একজন ঠিকাদার। তাদের ঘরে যথেষ্ট খাবার মজুদ রয়েছে। তাদের কোন ত্রানের প্রয়োজন নেই।
ইউএনও আরো জানান সরকারি ত্রান গুলো দেওয়া হচ্ছে নি¤œ আয়ের ও খেটে খাওয়া মানুষের জন্য যাদের কর্ম বন্ধ হয়ে গেছে। অথচ দূর্যোগ মুহুত্বে তারা মজা করায় ভ্রাম্যমান আদালত তাদের এ কারাদন্ড প্রদান করেন।