দুর্গাপুর পৌরশহরে বিদ্যালয় গুলির ক্লাস শুরু হয় কাদা-মাটি পরিস্কার দিয়ে

মোহন মিয়া , স্টাফ রির্পোটার, দুর্গাপুর :

নেত্রকোনার দুগাপুর পৌরসভার সদর এখন কাদা পানিতে সয়লাভ। কবির ভাষায় ‘‘সকালে উঠিয়া আমি মনে মনে বলি-সারাদিন আমি যেন কাঁদা মুক্ত চলি’’ কাদাপানির কারনে শিক্ষার্থীরা এখন আর বিদ্যালয়ে প্রবেশ করতে পারছে না। তাই প্রথমেই ভিজা বালু পরিবহনে বিদ্যালয়ের সামনের রাস্তা পরিস্কার করেই বিদ্যালয়ে প্রবেশ করতে হয় সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীদের। গতকাল সরজমিনে গিয়ে দেখাগেছে, পৌরসভার সাধুপাড়া এলাকায় অবস্থিত দি চাইল্ড লার্নিং হোমস্ এর শিক্ষার্থী ও স্কুল কর্তৃপক্ষ প্রতিদিনের মতো সকাল বেলা কাঁদা পরিস্কার করেই বিদ্যালয়ে প্রবেশ করছে। ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সাথে জানা যায় পৌরশহরের উপর দিয়ে প্রতিনিয়ত ভিজাবালু পরিবহনের কারনে রাস্তায় কাঁদা জমে থাকায় আমরা বিদ্যালয়ে প্রবেশ করার আগেই প্রতিদিন সকলে মিলে কাঁদা পরিস্কার করে বিদ্যালয়ে প্রবেশ করি। বিদ্যালয়ের শিক্ষক মো. শিমুল বলেন, অপ্রাপ্ত বয়স্ক চালক দিয়ে লাইসেন্স বিহীন লড়িতে প্রতিনিয়ত পরিবহন করা হচ্ছে ভিজাবালু, যে কারনে রাস্তায় কাঁদা জমে থাকে। সাধুপাড়া এলাকায় ৪টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ২টি মাদরাসা ও ২টি কলেজ রয়েছে। প্রতিদিন সবচেয়ে বিপাকে পড়তে হয় প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের।এ নিয়ে স্মারকলিপি প্রদান, মানববন্ধন সহ শহরে কয়েকবার মিছিল করেছি তার পরেও কোন কাজ হয়নি। এ নিয়ে পৌর মেয়র আলহাজ¦ মাওলানা আব্দুস সালাম সংবাদ কে বলেন, দুর্গাপুর পৌরসভা সহ আশপাশের ইজারাকৃত এলাকা থেকে ভিজাবালু পরিবহন নিষেধ করা হয়েছে। পৌরবাসীর চলাচলের সুবিধার্থে সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত রাস্তায় লড়ি চলাচল বন্ধেরও নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তবুও প্রকাশ্যে চলছে ট্রাক ও লড়ি। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাসুম বিল্লাহ বলেন কে শুনে কার কথা। এ গুলি দেখার যেন কেউ নেই।