গৌরীপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে শিশু খাদ্যে বিষ, মেয়াদউর্ত্তীণ- ভেজাল ও নকল পণ্যের সন্ধান

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি ঃ
ময়মনসিংহের গৌরীপুরে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আবিদুর রহমানের নেতৃত্বে বৃহস্পতিবার (২৭ আগস্ট/২০২০) পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালনা করেন। ছয়জন ব্যবসায়ীকে ৫৭জন হাজার টাকা অর্থদণ্ড করেন।
ভ্রাম্যমান আদালত এ সময় গৌরীপুর শহরের বিভিন্ন দোকানে শিশুপণ্য চকলেট, বিষাক্ত ক্যামিক্যাল দিয়ে তৈরি তরল পানীয়, চকোচকো, খোলা ময়লাযুক্ত অনুমোদনবিহীন তেল, মেয়াদ উর্ত্তীণ তরুল পানীয়, নিষিদ্ধ পলিথিনসহ বিভিন্ন পন্যের সন্ধান পায়। এছাড়াও দোকানে ধূমপানের অবৈধ প্রচারণা বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেন।
ভ্রাম্যমান আদালত ভেজাল ও বিষাক্ত পণ্য রাখার দায়ে মধ্যবাজারের মনোহারী ব্যবসায়ী মোঃ দুলাল মিয়াকে ৪৭হাজার টাকা, মোঃ বাদশা মিয়াকে ২হাজার টাকা, মোঃ সুজন মিয়াকে ১হাজার টাকা, প্রদীপকে ৩হাজার টাকা, মোঃ রোকন মিয়াকে ২হাজার টাকা ও মোঃ সুমন মিয়াকে ২হাজার টাকা অর্থদণ্ডের আদেশ দেন। তামাকপণ্যের অবৈধ বিজ্ঞাপন প্রচার করায় দায়ে সুমন মিয়াকে ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ আইনে এ ২হাজার টাকা জরিমান ধার্য্য করা হয়। সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আবিদুর রহমান জানান, জব্দকৃত পণ্য পুড়িয়ে ও তেল ড্রেনে ফেলে ধ্বংস করা হয়। তিনি আরো বলেন, শিশুদেরকে এসব কেমিক্যালযুক্ত বা রংযুক্ত খাবার থেকে নিরাপদ রাখুন।
ভ্রাম্যমাণ আদালতে উপস্থিত ছিলেন গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্যানিটারী ইন্সপেক্টর ও ভারপ্রাপ্ত নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক গৌতম কুমার সেন, গৌরীপুর পৌরসভার স্যানিটারী ইন্সপেক্টর ও ভারপ্রাপ্ত নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক মোঃ শফিকুল ইসলাম, গৌরীপুর থানার সাব ইন্সপেক্টর মোঃ উজ্জল মিয়া প্রমুখ।