গৌরীপুরে তিথি নিহতের প্রথম দিনে রাস্তার যানবাহন নিয়ন্ত্রণে ছিলো যুব সমাজ : স্কুলে স্কুলে শোকের মাতম, কালো ব্যাজ ধারণ

 প্রধান প্রতিবেদক :
মেধাবী স্কুলছাত্রী তিথি হত্যাকান্ডের প্রতিবাদ আর শোকের মাতম স্কুলে স্কুলে ছড়িয়ে পড়ছে। মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি/২০২০) পতাকা পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাজ ধারণ, হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের বিচারের দাবিতে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়ক ও নেত্রকোণা-ময়মনসিংহ সড়কে মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়। রেলওয়ে জংশনে নিরাপদ সড়কের দাবিতে মানববন্ধন ও ময়মনসিংহের গৌরীপুর পৌর শহরে যানবাহন নিয়ন্ত্রণের জন্য মাঠে নামে যুব সমাজ।

নিহত তিথি পাল ও আহত রূপ চক্রবর্তী দু’জনই ৫ম শ্রেণিতে জিপিএ-৫ পায়। ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি হয় গৌরীপুর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে। তিথি পাল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সমাপনি পরীক্ষায় উপজেলায় মেধা তালিকায় ৫ম স্থান অর্জন করেছিলো। সংগীতেও প্রথম অর্জন করে। সোমবার শহরের পাটবাজার এলাকায় বালুবাহী ট্রাক চাপায় তিথি পাল নিহত হয়। তার বাবা বাদি গৌরীপুর গৌরীপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ বুরহান উদ্দিন জানান, গ্রেফতারকৃত ট্রাক চালক ও হেলপাড়কে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৪জানুয়ারি/২০২০) গৌরীপুর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে তিথি পাল স্মরণে তিনদিনের কর্মসূচীর প্রথম দিনে কালো পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাজ ধারণ, স্মৃতিচারণের মধ্য দিয়ে পালিত হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ এনামূল হক সরকার।

রামগোপালপুর পিজেকে উচ্চ বিদ্যালয়ের উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিচারের দাবিতে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের রামগোপালপুরে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে। নিরাপদ সড়কের দাবিতে হেলাল উদ্দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা রেলওয়ে জংশনে মানববন্ধন করে।

অপরদিকে তিথি পালের মৃত্যুর পরেও বালিবাহী ট্রাক, হ্যান্ডটুলি ও অবৈধ যানবাহন শহরের চলাচল বন্ধ হয়নি। এর প্রতিবাদে যুব সমাজ রাস্তায় নামে। শহরের কালিপুর মধ্যম তরফ থেকে স্টেশন রোড পর্যন্ত মূল শহরে ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়, রাস্তার ওপরের সকল যানবাহন অপসারণ ও অবৈধ স্ট্যান্ড সরিয়ে দিয়ে শহরে যানবাহনের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনে।

এছাড়াও শোক পালন করেন ইসলামাবাদ সিনিয়র মাদরাসা, নুরুল আমিন খান উচ্চ বিদ্যালয়, অগ্রদূত নিকেতন আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, গৌরীপুর টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ, টেক্সটাইল ভোকেশনাল ইন্সটিটিউট, গৌরীপুর সরকারি কলেজ, পৌর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, প্রতিভা মডেল স্কুল উপজেলা সদরের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশে অংশ নেয়।
তিথি পাল পৌর শহরের মধ্যবাজার মহল্লার রঞ্জন কুমার পাল ও রীতা পালের মেয়ে। রীতা পাল জানান, সোমবার সকাল সকাল ৭টা ১৫মিনিটে কোচিংয়ের উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বেড়িয়ে যায়। প্রতিদিনই মেয়েকে সঙ্গে করে নিয়ে যাই, সেদিন যেতে পারিনি। ওকে বলেছিলাম সাবধান যাইস, সাবধানে গিয়েও আমার মেয়ে বাঁচতে পারলো না। ফিরলো লাশ হয়ে। এসব বলেই বারবার মূর্ছা যান তিনি।

অপরদিকে তিথিপালের মৃত্যুর প্রতিবাদে ও বিচার চেয়ে ক্লাস বর্জন করে হাজার হাজার শিক্ষার্থী সোমবার দফায় দফায় বিক্ষোভ মিছিল, গাড়ী ভাংচুর, টায়ারে অগ্নিসংযোগ, সড়ক অবরোধ করে অবস্থান ও মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে। তিথি হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে আজ বুধবার স্মারকলিপি পেশ ও বৃহস্পতিবার শহরের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচী রয়েছে বলে জানান প্রধান শিক্ষক মোঃ এনামূল হক সরকার।

টি.কে ওয়েভ-ইন