গৌরীপুরে চাল বিক্রির অভিযোগে ডিলারসহ গ্রেফতার ৩ ॥ ১৭০ কেজি চাল জব্দ

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি ঃ
ময়মনসিংহের গৌরীপুরে কালোবাজারে চাল বিক্রির অভিযোগে ডিলারসহ ৩জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে সরকারি খাদ্য বান্ধব কর্মসূচীর ১৭০ কেজি চাল জব্দ করা হয়েছে। অভিযানে নেতৃত্বে দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার সেঁজুতি ধর, গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ বোরহান উদ্দিন, সাবইন্সপেক্টর মোঃ মাইনুল রেজা। এঘটনায় গৌরীপুর খাদ্য নিয়ন্ত্রক বিপ্লব কুমার সরকার বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল/২০২০) মামলা দায়ের করেন।
মামলা সূত্র জানা যায়, বৃহস্পতিবার ২টি প্লাস্টিকের বস্তায় বোকাইনগর ইউনিয়নের কালিবাড়ীর মোঃ রফিক মিয়ার পুত্র মোঃ রিয়াজ মিয়া (২০) ও লুটন রাজবরের পুত্র মহেশ রাজবর (৪৫) নিয়ে যাওয়ার সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার সেঁজুতি ধর ও গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ বোরহান উদ্দিন চাল নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি জিজ্ঞাসাবাদ করেন। ওরা দু’জন জানায় যে, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর ডিলার কালীপুর মধ্যম তরফের মোঃ হাবিবুর রহমানের পুত্র মোঃ মাহবুবুর রহমান শাহিন (৪৫) ও বোকাইনগর ইউনিয়নের মেম্বার বালুচড়া গ্রামের আবু সাঈদ সাহেদের পুত্র মোঃ স্বপন মিয়ার নিকট হইতে এনেছে। এরপর অভিযান চালিয়ে পুলিশ ডিলার শাহীন, রফিক ও মহেষকে গ্রেফতার করে। উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক আরো জানান, অনুসন্ধান ও জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, ইউপি সদস্য স্বপন মিয়ার ও ডিলার মাহবুবুর রহমান শাহিনের পরস্পর যোগসাজসে সরকার কর্তৃক দরিদ্র ও অসহায় ব্যক্তিদের বিপর্যয়কালীন সময়ে জীবন রক্ষার্থে সরকারি কোষাগার হইতে ভর্তুকি দিয়া ১০টাকা কেজি মূল্যের বিতরণের জন্য প্রদত্ত চাল কালোবাজরে পাচার করে বেশি দামে বিক্রি করছিলো।
গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ বোরহান উদ্দিন জানান, মোঃ রিয়াজ মিয়া (২০), মহেশ রাজবর (৪৫), মাহবুবুর রহমান শাহিন (৪৫) ও মোঃ স্বপন মিয়ার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। তাদের মধ্যে স্বপন মিয়া ছাড়া ৩জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। স্বপনকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে। মাহবুবুর রহমান শাহীন জানান, মেম্বার স্বপন মিয়া মহেষকে ১৮টি কার্ড দিয়ে পাঠায়। সেই কার্ডের চাল ক্রয় করেছে রিয়াজ। উপজেলা নির্বাহী অফিসার সেঁজুতি ধর জানান, ঘটনাস্থল থেকে ১৭০ কেজি চাল জব্দ করা হয়েছে। তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।###