গৌরীপুরে অপহৃত ৮ম শ্রেণির স্কুল ছাত্রী দূর্গাপুরে উদ্ধার ॥ গ্রেফতার-১

প্রধান প্রতিবেদক :
ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার মইলাকান্দা ইউনিয়নের গোবিন্দপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির অপহৃত স্কুল ছাত্রী (১৪) কে নেত্রকোণা জেলার দূর্গাপুর থেকে বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর/২০২০) রাতে উদ্ধার করে গৌরীপুর থানার পুলিশ। অপহরণে জড়িত থাকার অভিযোগে চল্লিশা কাউরাট গ্রামের মোঃ আব্দুর রহমানের পুত্র মোঃ শাহীন মিয়া (১৯) কে গ্রেফতার করেছে।

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ বোরহান উদ্দিন জানান, শনিবার (৩০ অক্টোবর/২০২০) গ্রেফতারকৃত আসামীকে ও ভিকটিমকে ২২ধারা জবানবন্দির জন্য বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
মামলা ও ভিকটিমের পরিবার সূত্র জানায়, মোঃ শাহীন মিয়া দীর্ঘদিন যাবত এ স্কুল ছাত্রীকে বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়ার পথে প্রেমপ্রস্তাবসহ নানাভাবে উত্ত্যক্ত করতো। বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় ছাত্রীর বাড়ি গিয়েও অনুরূপ আচারণ করে। পরিবারের তার আচারণে ক্ষুব্ধ হয়ে শাহীনের বাবা মোঃ আব্দুর রহমান, মাতা মোছাঃ জোহুরা খাতুন, ভাই মোঃ লাল চানের নিকট নালিশ দেয়া হয়। এতে আরো ক্ষিপ্ত হয়ে স্কুল ছাত্রীর বাবার সঙ্গে অসাধাচারণ করেন। গত ২১ সেপ্টেম্বর কসমেটিক কেনার জন্য গোবিন্দপুর বাজারে এলে অহপরণের শিকার হয় এ স্কুলছাত্রী। এ ঘটনার তার বাবা মোঃ মজিবুর রহমান বাদী হয়ে গৌরীপুর থানায় ২৪ সেপ্টেম্বর মামলা দায়ের করেন।

অপরদিকে গত বৃহস্পতিবার শ্যামগঞ্জ বাজারে কসমেটিক কিনতে এসে অপহরণের শিকার হন শ্যামগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির আরেক স্কুল ছাত্রী। তাকেও উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় অপহৃত ছাত্রীর ভাই বাদী হয়ে গৌরীপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেন গৌরীপুর অফিসার ইনচার্জ মোঃ বোরহান উদ্দিন। তিনি জানান, ভিকটিমকে উদ্ধার করা হয়েছে। মামলার তদন্তকারী অফিসার মোঃ সামছুল ইসলাম জানান, ভিকটিম ২২ধারামতে বিজ্ঞ বিচারকের নিকট জবানবন্দি দিয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত আছে।

মামলা ও পুলিশ সূত্র জানায়, এমদাদুল হক দীর্ঘদিন যাবত স্কুল ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করে আসছিলো। গত বৃহস্পতিবার শ্যামগঞ্জ বাজারে কসমেটিক কিনতে আসলে মইলাকান্দা ইউনিয়নের নওপাই গ্রামের মোঃ আব্দুল খালেকের পুত্র মোঃ এমদাদুল হক (২১), তারাকান্দা উপজেলার কুটুরাগাঁও গ্রামের আতাউর রহমানের পুত্র মোঃ কমল মিয়া (২২) সহ অজ্ঞাত নামা ২/৩ জন জোরপুর্বক মোটর সাইকেল করে উঠিয়ে নিয়ে যায়।

টি.কে ওয়েভ-ইন