খাদ্যসামগ্রী মাথায় নিয়ে মানুষের ঘরে ঘরে র‌্যাব কমান্ডার

সংগ্রাম সিং, সিলেট :

বর্তমান করোনায় সৃষ্ট পরিস্থিতিতে কর্মহীন অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন র‌্যাব-৯ এর শ্রীমঙ্গল ক্যাম্প কমান্ডার এএসপি মো. আনোয়ার হোসেন শামীম। বেতনের টাকায় নিজের মাথায় বহন করে দুর্গম এলাকার মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছেন খাদ্যসামগ্রী।

র‌্যাব কর্মকর্তার এমন মহতি উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন অনেকেই। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও প্রশংসায় ভাসছেন এএসপি মো. আনোয়ার শামীম।

দেশে লকডাউন শুরু হওয়ার এ পর্যন্ত প্রায় হাজারখানেক পরিবারের ঘরে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন তিনি। বর্তমান পরিস্থিতিতে সমাজের সামর্থ্যবানদের কর্মহীন অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানান মানবিক এই র‌্যাব কমান্ডার।

এ নিয়ে নিজের ফেসবুক স্ট্যাটাসে এএসপি মো. আনোয়ার হোসেন শামীম লিখেছেন, অনেকেই জানতে চান, আমি একজন বিসিএস ক্যাডার অফিসার এবং র‌্যাবের কমান্ডার হওয়া সত্ত্বেও খাদ্যসামগ্রীর বস্তা নিজে বহন করি কেন? বোঝা নেয়ার জন্য নিচের র্যাং কের লোকজন তো আছেই।

আসলে এক্ষেত্রে আমার ভাবনাটা একটু ভিন্ন। আমি যদি আমার অধীনস্থ র‌্যাব সদস্যদেরকে বোঝা বহন করবার আদেশ দিয়ে নিজে খালি হাতে হাঁটতাম, তাহলে তারা হয়তো আমাকে স্বার্থপর একজন নেতা হিসেবেই চিহ্নিত করতো, যা তাদের কর্মস্পৃহা ও মনোবলকে নেতিবাচকভাবে প্রভাবিত করতো নিশ্চিত।

তাই প্রতিটি ক্ষেত্রে অধস্তনদের সমান ভার নেয়া, চাল-ডালের বস্তা মাথায়/হাতে নিয়ে সবার সামনে সামনে চলাই আমার নেতৃত্ব দানের স্টাইল। কাঁধের র্যাং ক দেখে নয়, কাজের মাধ্যমেই প্রমাণ হোক এখানে কমান্ডার কোন জন। অফিসাররা বোঝা মাথায় নিলে জাত চলে যাবে, বোঝা বহন করা শুধু নিচের রাং কের লোকদের কাজ- এমন অমানবিক ও মধ্যযুগীয় চিন্তাধারা করোনাভাইরাসের সঙ্গে সঙ্গে পৃথিবী থেকে বিদায় হোক।’