কোহলিদের সঙ্গে হাত মেলাবেন না দ. আফ্রিকার ক্রিকেটাররা

বাহাদুর ডেস্ক :

করোনাভাইরাস আতঙ্কে বিশ্বজুড়ে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে একের পর এক ক্রীড়া ইভেন্ট। এমন পরিস্থিতিতে ভারত সফরে এসেছে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দল। স্বাগতিকদের বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ খেলবেন তারা। স্বভাবতই তাদের পূর্ণ মনোযোগ থাকার কথা খেলায়।

কিন্তু করোনা আতঙ্ক পিছু ছাড়ছে না প্রোটিয়াদের। পরিপ্রেক্ষিতে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। ক্রিকেটীয় আদব-কায়দা মেনে বিরাট কোহলিদের সঙ্গে হ্যান্ডশেক করবেন না দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটাররা। কারণ এর মাধ্যমেই সবচেয়ে দ্রুত ছড়ায় প্রাণঘাতী এ ভাইরাস।

গেল সোমবার ভারতে করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪০। এদিন সাবেক প্রোটিয়া উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান এবং বর্তমান কোচ মার্ক বাউচার পরিষ্কার জানিয়ে দেন, ভারত সফরে তার দলের ক্রিকেটাররা হ্যান্ডশেক করা থেকে বিরত থাকবেন। অথচ ম্যাচে টস শুরুর আগে দুই অধিনায়কের এবং পরে দুদলের ক্রিকেটারদের হ্যান্ডশেক করার রীতি রয়েছে। কিন্তু করোনাভাইরাস আতঙ্কে তা না করার সিদ্ধান্ত নিলেন প্রোটিয়া ক্রিকেটাররা।

দেশ ছেড়ে ভারতের উদ্দেশে বিমানে ওঠার আগে জোহানেসবার্গে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ছেলেদের মধ্যে করোনা আতঙ্ক বিরাজ করছে। সুতরাং ভারত সফরে আমরা হ্যান্ডশেক না করার চেষ্টা করব। এ ব্যাপারে ছেলেদের মতামতকে গুরুত্ব দেয়া হবে। আমাদের সঙ্গে সিকিউরিটি স্টাফ থাকবে। আশা করি, স্বাস্থ্যের কথা ভেবে তারাও এটি মাথায় রাখবে। তারা যদি মনে করে, এতে আমাদের ক্ষতি হতে পারে, তা হলে তা না করাই শ্রেয়।

ভারত সফরে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ খেলবে দক্ষিণ আফ্রিকা। সিরিজের প্রথম ম্যাচ হবে বৃহস্পতিবার ধর্মশালায়। এখন করোনাভাইরাস আতঙ্কে কাঁপছে গোটা বিশ্ব। ক্রিকেটাঙ্গনেও এর প্রভাব পড়েছে। সেই জেরে গেল সপ্তাহে ইংল্যান্ড অধিনায়ক জো রুট জানান, শ্রীলংকা সফরে করমর্দন করা থেকে বিরত থাকবেন ক্রিকেটাররা।

তবে অস্ট্রেলিয়া ঘোষণা দিয়েছে, করোনা আতঙ্ক থাকলেও হ্যান্ডশেক করবেন তারা। কারণ তাদের কাছে পর্যাপ্ত হ্যান্ড স্যানিটাইজার রয়েছে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলতে নামছেন অজিরা।

তথ্যসূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া/নিউজ১৮।

টি.কে ওয়েভ-ইন