করোনা আতঙ্কের মধ্যেই বসলো পদ্মা সেতুর ২৭তম স্প্যান

বাহাদুর ডেস্ক :

করোনা আতঙ্কের মধ্যেই শনিবার সকালে পদ্মা সেতুর ২৭ ও ২৮ নম্বর খুঁটির ওপর বসানো হলো ২৭তম স্প্যান। এর মধ্যে দিয়ে সেতুন ৪ হাজার ৫০ মিটার দৃশ্যমান হয়েছে। পদ্মা সেতু প্রকল্পের দায়িত্বশীল প্রকৌশলী সূত্রে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

এর আগে শুক্রবার স্প্যানটিকে বহন করে ভাসমান জাহাজ ‘তিয়ান-ই’ মাঝ পদ্মায় নোঙর করে খুঁটির কাছে।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের (মূল সেতুর) নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান মো. আবদুল কাদের জানান, আগামী মাসের মাঝামাঝিতে আরও দুইটি স্প্যান বসানোর প্রস্তুতি চলছে।

দায়িত্বশীল প্রকৌশলী সূত্র জানায়, পদ্মা সেতুর খুঁটির ওপর আরও ৫টি স্প্যান বসানোর কর্মযজ্ঞ চলমান। এর মধ্যে দুইটি স্প্যান চূড়ান্ত রঙের কাজ চলছে।

প্রকৌশলী সূত্র জানায়, পদ্মা সেতুর মোট ৪১টি স্প্যানের মধ্যে চীন থেকে মাওয়ায় এসেছে ৩৫টি স্প্যান। বাকি স্প্যানগুলো মার্চের মধ্যেই দেশে চলে আসবে। সেতুর ৪১টি স্প্যানের মধ্যে ২৬টি স্থায়ীভাবে স্থাপন করা হয়েছে। শনিবার বসানো হল ২৭তম স্প্যান। আর এ সিডিউল মেনে স্প্যান বসাতে পারলে আগামী বছরের জুলাই নাগাদ ৪১টি স্প্যান বসানো শেষ হবে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মাসেতুর নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়েছে। চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি মূল সেতু নির্মাণের কাজ করছে এবং নদী শাসনের কাজ করছে দেশটির আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যরে পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ সম্পন্ন শেষে ২০২১ সালেই খুলে দেওয়া হবে যানবাহন চলাচলের জন্য।

টি.কে ওয়েভ-ইন