করোনাভাইরাস রোধে কী পদক্ষেপ, সোমবারের মধ্যে জানতে চান হাইকোর্ট

বাহাদুর ডেস্ক :

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে কী ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে, তা জানতে চান হাইকোর্ট। করোনাভাইরাস শনাক্তকরণে স্থল, নৌ ও বিমানবন্দরে কী ধরনের পরীক্ষার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে, সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে কী ধরনের প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে সোমবারের মধ্যে তা জানাতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহাসানের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে এ আদেশ দেন।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জাতীয় মনিটরিং সেল গঠনের নির্দেশনা চেয়ে গত রোববার হাইকোর্টে রিট করেন ব্যারিস্টার হুমায়ন কবির পল্লব।

এর আগে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সারা দেশে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার জন্য ল অ্যান্ড লাইফ ফাইন্ডেশনের পক্ষে এ লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়।

নোটিশে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে একটি উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন মনিটরিং সেল গঠন, সারাদেশে পর্যাপ্ত মাস্ক সরবরাহ নিশ্চিত করাসহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার দাবি জানানো হয়।

স্বাস্থ্য সচিব, পররাষ্ট্র সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, বিমান ও পর্যটন সচিবসহ সরকারের সংশ্লিষ্ট ৮ জনকে এই নোটিশ পাঠানো হয়।

করোনাভাইরাসের জন্য বাংলাদেশ ঝুঁকিপূর্ণ উল্লেখ করে নোটিশে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাস ঠেকাতে শুধু বিমানবন্দর, স্থলবন্দর, সমুদ্রবন্দর ও হাসপাতালগুলোতে বিশেষ পদক্ষেপের মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে সারা দেশে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া অত্যাবশ্যকীয়। পাশাপাশি করোনাভাইরাস রোধে ডাক্তার, প্যারামেডিকস, বেসামরিক প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসনের সমন্বয়ে একটি উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন মনিটরিং সেল গঠনের সময় এসেছে।

নোটিশের জবাব না পাওয়ায় এ রিট করা হয়।

উল্লেখ্য, চীনের উহান থেকে করোনাভাইরাসের বিস্তার। এ পর্যন্ত সারাবিশ্বে এ ভাইরাসে তিন হাজার ২৮৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত হয়েছেন ৯৫ হাজার ৩৮২ জন।

এরই মধ্যে ৮৫ টির বেশি দেশে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়েছে।

টি.কে ওয়েভ-ইন