আজ শনিবার ৩০শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১৩ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:
||
  • প্রকাশিত সময় : ফেব্রুয়ারি, ১০, ২০২০, ১:৫২ অপরাহ্ণ




ইনিংস হার এড়াতে পারল না মুমিনুলরা

বাহাদুর ডেস্ক :

পাকিস্তানের বিপক্ষ প্রথম টেস্টে ইনিংস ব্যবধানের হার এড়াতে পারল না বাংলাদেশ। চতুর্থ দিন সকালেই মুমিনুলদের ইনিংসের যবানিকাপাত ঘটে। ফলে ইনিংস ও ৪৪ রানের হার হজম করতে হল। দুর্দান্ত জয়ে দুই ম্যাচ সিরিজে ১-০তে এগিয়ে গেল পাকিস্তান।

এর আগে ভারতের বিপক্ষে মাত্র আড়াই দিনে দুই টেস্ট শেষ করে বাংলাদেশ। সেই তুলনায় পাকিস্তান সফরে কিছুটা উন্নতি হয়েছে টাইগারদের, টেস্ট গড়ায় চতুর্থ দিনে।

শুক্রবার পিন্ডি টেস্টে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ২৩৩ রান করে বাংলাদেশ। প্রথম দিনেই অলআউট হয়ে যায় তারা। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৬৩ রান করেন মোহাম্মদ মিথুন। নাজমুল হোসেন শান্ত করেন ৪৪ রান। আর অধিনায়ক মুমিনুল হকের ব্যাট থেকে আসে ৩০ রান।

পাকিস্তানের হয়ে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট নেন শাহিন শাহ আফ্রিদি। আর ২টি করে উইকেট নেন মোহাম্মদ আব্বাস ও হারিস সোহেল।

জবাবে শান মাসুদ, বাবর আজমের সেঞ্চুরি এবং আসাদ শফিক ও হারিস সোহেলের ফিফটিতে সবক’টি উইকেট হারিয়ে ৪৪৫ রান করে পাকিস্তান। ১৪৩ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেন বাবর। কাঁটায় ১০০ করেন মাসুদ। হারিস করেন ৭৫ রান। আর আসাদ তুলেন ৬৫ রান। বাংলাদেশের পক্ষে ৩টি করে উইকেট নেন আবু জায়েদ ও রুবেল হোসেন।

২১২ রানে পিছিয়ে থেকে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। এবার অবশ্য শুরুটা ভালো হয়। তৃতীয় উইকেটে প্রতিরোধও গড়ে ওঠে। তবে তরুণ নাসিম শাহর হ্যাটট্রিকে সব এলোমেলো হয়ে যায়। ২ উইকেটে ১২৩ থেকে ক্ষণিকেই স্কোর হয়ে যায় ১২৬/৬। শেষ অবধি ১৬৮ রানে অলআউট হয়ে যান সফরকারীরা।

বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ৪১ রান করেন অধিনায়ক মুমিনুল হক। ৩৮ রান সংগ্রহ করেন নাজমুল হোসেন শান্ত। আর লিটন দাসের উইলো থেকে ২৯ রান। স্বাগতিকদের পক্ষে নাসিম শাহ ও ইয়াসির শাহ নেন সমান ৪টি করে উইকেট।

টি.কে ওয়েভ-ইন




Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও খবর




অনলাইন জরিপ

জাতিসংঘের বিশেষ দূত এলিস ক্রুজ বলেছেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির সুফল সব মানুষের কাছে পৌঁছাচ্ছে না। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?

View Results

Loading ... Loading ...

পুরনো সংখ্যার নিউজ

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০